Lead Banner

রাসায়নিক হামলার আশঙ্কায় হাসপাতালগুলোতে নির্দেশনা

1

নিজস্ব প্রতিবেদক : স্বাস্থ্য অধিদফতর দেশের জেলা ও বিশেষায়িত হাসপাতালগুলোকে রাসায়নিক হামলার আশঙ্কা থেকে সতর্ক থাকতে চিঠি দিয়েছে। হামলায় দ্রুত চিকিৎসা সেবা দেওয়ার জন্য ৫টি নির্দেশনাও দেওয়া হয়েছে।

গোয়েন্দা বিভাগ থেকে রাসায়নিক হামলা হতে পারে এমন সতর্কবার্তা দেওয়ার পর এ নির্দেশনা দেওয়া হয়।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক অধ্যাপক ডা. কাজী জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, ‘আমরা এ সংক্রান্ত চিঠি পাওয়ার পর তা বিশেষায়িত ও জেলা হাসপাতালগুলোতে পাঠিয়েছি। তাদের প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি নিতে বলা হয়েছে।’

দেশে রাসায়নিক হামলার আশঙ্কা রয়েছে উল্লেখ করে গত ৩ মে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগ একটি চিঠি দেওয়া হয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে।

৪ জুন স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এ বিষয়ে চিঠি পাঠায় স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক বরাবর। এরপর মহাপরিচালকের অনুমোদন সাপেক্ষে ২৬ আগস্ট প্রতিটি জেলা হাসপাতাল ও বিভাগীয় মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিঠি পাঠানো হয়েছে।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের চিঠিতে বলা হয়, ‘এই মর্মে সব বিশেষায়িত হাসপাতাল ও মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক এবং জেলা সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক উপ-পরিচালক, তত্ত্বাবধায়ক কাম সিভিল সার্জনকে জানানো যাচ্ছে যে, জননিরাপত্তা বিভাগ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কর্তৃক প্রেরিত গোপন প্রতিবেদনের আলোকে বাংলাদেশে সম্ভাব্য রাসায়নিক জঙ্গি হামলায় হতাহত ব্যক্তিদের চিকিৎসা ব্যবস্থাপনাসমূহের নিম্ন উল্লিখিত পদক্ষেপ গ্রহণ করা যেতে পারে।’

চিঠিতে পাঁচটি নির্দেশনা দেওয়া হয়। এগুলো হচ্ছে—

১. রাসায়নিক হামলায় হতাহত ব্যক্তিদের চিকিৎসার জন্য প্রতিটি হাসপাতালে একটি বিশেষ চিকিৎসা ব্যবস্থাপনা টিম গঠন করা।
২. প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সরঞ্জাম ওষুধ সীমিত আকারে মজুত রাখা।
৩. অ্যাম্বুলেন্স সচল রাখা।
৪. ওটি কমপ্লেক্সে বিদ্যুতের বিকল্প ব্যবস্থা জেনারেটর সচল রাখা।
৫. বিশেষ চিকিৎসা ব্যবস্থাপনা টিমের সব সদস্যের বিশেষ প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা।

বীকনবাংলা/আরিফ