Lead Banner

‘অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা না থাকলে রাষ্ট্র চলবে না’

8

বীকনবাংলা ডেস্ক : অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা না থাকলে সমাজ-রাষ্ট্র চলবে না জানিয়ে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ বলেছেন, অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা না থাকলে দুদক থাকবে না।

সাংবাদিকদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘আমি আপনাদের পক্ষে বলতে চাই, আমার বিরুদ্ধেই হোক আর দুদকের বিরুদ্ধে হোক- আপনারা লিখবেন। অনুসন্ধানের তথ্য যদি আপনারা না দেন তাহলে প্রতিষ্ঠান চলবে না। সমাজ-রাষ্ট্র চলবে না।’

মঙ্গলবার (১৬ অক্টোবর) বিকেলে রাজধানীর প্রেস ইনস্টিটিউটে আয়োজিত অনুসন্ধানমূলক রিপোর্টিং প্রশিক্ষণ কর্মশালার সমাপনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

রিপোর্টার্স এগেইনস্ট করাপশন (র‌্যাক) এবং প্রেস ইনস্টিটিউট (পিআইবি) যৌথভাবে তিন দিনব্যাপী এই প্রশিক্ষণ কর্মশালার আয়োজক করে। বক্তব্য শেষে দুদক চেয়ারম্যান সাংবাদিকদের হাতে সনদ তুলে দেন।

ইকবাল মাহমুদ বলেন, ‘৫৭ ধারা বা ডিজিটাল আইন সম্পর্কে আমার তেমন ধারণা নেই। তবে আপনাদের কোনো ভয়ের কারণ নেই। দুদকের প্রাতিষ্ঠানিক বিষয় নিয়ে আপনারা অনুসন্ধানী প্রতিবেদন প্রকাশ করবেন। দুদক এসব সংবাদকে স্বাগত জানাবে। কোনো প্রতিবেদনের জন্য দুদকের পক্ষ থেকে কোনো মামলা-টামলা হবে না। এখন পর্যন্ত কোনো প্রতিবেদনের জন্য দুদকের পক্ষ থেকে প্রতিবাদও জানানো হয়নি। অনুসন্ধান করবেন, আপনাদের কোনো ভয় নেই।’

তিনি বলেন, ‘অনুসন্ধানী সাংবাদিকতার ক্ষেত্রে সত্য প্রকাশ করবেন। আপনারা যদি আমাকে চ্যালেঞ্জ না করেন, আমি নিজেকে সংশোধন করতে পারব না। আপনারা প্রশ্ন করবেন, সব প্রশ্নের উত্তর হয়তো আমি দেবো না, দিতেও পারব না। তবে কিছু প্রশ্নের উত্তর দেবো।’

দুদক কার্যালয়ে দুপুর ৩টার আগে সাংবাদিকদের প্রবেশ করতে দেয়া হয় না। এছাড়া সংস্থাটির জনসংযোগ কর্মকর্তা অনুপস্থিত থাকলেও সাংবাদিকরা দুদক কার্যালয়ে যেতে ভোগান্তি পোহান। এদিন বিষয়টি দুদক চেয়ারম্যানকে অবহিত করা হয়।

সভাপতির বক্তব্যে পিআইবি’র মহাপরিচালক শাহ আলমগীর বলেন, কোনো আইনের কারণে সাংবাদিকতা থেমে থাকেনি। আইন করে ভালো কাজ আটকানো যাবে না। কাজেই আইন নিয়ে ভীত হওয়ার কারণ নেই।

বীকনবাংলা/এইচআর